২০ নভেম্বর ২০১৭ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৬ষ্ঠ বর্ষ ৩৪শ সংখ্যা: বার্লিন, রবিবার ২০ আস্ট – ২৬ আস্ট ২০১৭ # Weekly Ajker Bangla – 6th year 34th issue: Berlin,Sunday 20Aug – 26Aug 2017

আরো জনপ্রিয় হয়ে উঠছে ‘মুসলিমদের পোশাক' বুর্কিনি

শুধু মুসলিম নারীরা নয়

প্রতিবেদকঃ ডিডাব্লিউ তারিখঃ 2016-08-24   সময়ঃ 06:04:52 পাঠক সংখ্যাঃ 494

প্রথমে বোরকা, তারপর বুর্কিনিও নিষিদ্ধ করেছে ফ্রান্স৷ কিন্তু মুসলিম নারীদের এই পোশাকের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে ফল হয়েছে উল্টো৷ বুর্কিনির বিক্রি আরো বেড়েছে!

শুধু মুসলিম নারীরা নয়, এখন অনেক অমুসলিম নারীও কিনতে শুরু করেছেন বুর্কিনি৷ বুর্কিনির ডিজাইনার আহেদা জানেত্তি নিজেই জানিয়েছে কথাটা৷ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে তিনি বলেছেন, ‘‘আমাদের বিক্রি আরো বাড়ছে৷ ওরা যতই নিষিদ্ধ করুক, যতই বাতিল ঘোষণা করুক, তার মানে তো এই নয় যে সবাই এটা পরা বন্ধ করে দেবে৷'' আহেদা জানান, এখন মোট বিক্রির প্রায় ৪০ শতাংশ বুর্কিনিই উঠছে অমুসলিম নারীদের হাতে৷

২০০৪ সালে শুধু মুসলিম নারীদের কথা ভেবেই সাঁতারের এই বিশেষ পোশাকটির ডিজাইন করেছিলেন লেবানন থেকে অস্ট্রেলিয়ায় পাড়ি জমানো আহেদা জানেত্তি৷ ‘বুরকা', অর্থাৎ বোরকা এবং স্নানের পোশাক বিকিনি – এই দুয়ের ধারণার সমন্বয়ে তৈরি বলে পোশাকটির নাম ‘বুর্কিনি' দিয়েছিলেন আহেদা৷ ভেবেছিলেন, মুসলিম নারীদের ওপর চোখ-মুখ ঢাকা বোরকা পরায় যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হচ্ছে তা থেকে এই পোশাক রেহাই পাবে৷ আরো ভেবেছিলেন সাধারণ অবস্থায় তো বটেই চাইলে সাঁতারের সময়ও এই পোশাক পরতে পারবেন মুসলিম নারীরা৷

কিন্তু সম্প্রতি ফ্রান্সে বুর্কিনিও নিষিদ্ধ করা হয়৷ ফরাসি সরকার বলছে, বোরকা বা নিকাব তো বটেই, এমনকি মুখমণ্ডল ছাড়া শরীরের বাকি সব অংশ ঢেকে রাখার পোশাক বুর্কিনিও সে দেশের ধর্মনিরপেক্ষ নীতির সঙ্গে বেমানান৷ তারপর থেকেই চলছে বিতর্ক৷ কেউ কেউ বলছেন, বুর্কিনি নিষিদ্ধ করা একেবারেই ঠিক হয়নি৷ কেউ আবার বলছেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে এমন নিষেধাজ্ঞার প্রয়োজনীয়তা অস্বীকার করা যায় না৷

 

তবে বিতর্কে জড়িয়ে পড়া সবাই যা-ই বলুন, বাজারে কিন্তু তার খারাপ কোনো প্রভাব পড়েনি৷ বরং বিতর্ক বাজারকে আরো চাঙা করেছে৷ আহেদা জানেত্তি আশা করছেন, সারা বিশ্বে বুর্কিনির বিক্রি আরো বাড়বে৷

এসিবি/ডিজি (রয়টার্স, এপি)



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ