২০ নভেম্বর ২০১৭ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৬ষ্ঠ বর্ষ ৪১শ সংখ্যা: বার্লিন, রবিবার ০৮অক্টো – ১৪অক্টো ২০১৭ # Weekly Ajker Bangla – 6th year 41st issue: Berlin,Sunday 08Oct - 14Oct 2017

উন্নয়নমূলক প্রকল্পের প্রতিশ্রুতি - শনিবারের ভাবনা

চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং এর বাংলাদেশ সফরে

প্রতিবেদকঃ মোনাজ হক তারিখঃ 2016-10-14   সময়ঃ 06:03:36 পাঠক সংখ্যাঃ 266

আমি বিশ্বাস করি “Good governance is accountable” যখন জনগণের সেবা দেবার জন্যে সরকার কাজ করে। তাই যখন চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং এর বাংলাদেশ সফরে ২৬ টি "চুক্তি ও এম ও ইউ" সই করে বাংলাদেশ সরকার এবং প্রায় ১৪ বিলিয়ন ডলার (২% সুদে) ধার নিয়ে উন্নয়নমূলক প্রকল্পের প্রতিশ্রুতি পাই তখন বলি Good governance is responsive and effective আবার যখন ভারতের এক্সিম ব্যাঙ্ক এর কাছ থেকে (৩% সুদে) ১.৫ বিলিয়ন ডলার ধার নিয়ে (প্রযুক্তি ও জ্বালানি দুটোই ভারত থেকে আমদানি করে দায়বদ্ধতায় থাকে) এবং সুন্দর বনের ক্রিটিকাল এরিয়া (১০ কি মি পরে) এর ৪ কিলো মিটার দূরে রামপাল এর মতো ধ্বংসাত্মক প্রকল্প করার উদ্যোগ নেয় তখন বলি Good governance is less- efficient সরকার দেশ পরিচালনা করে, আর জনগণ দেশের সম্পদের মালিক এটাই নিয়ম।

তাই যখন দেখি জার্মানির মতো দেশে ইউরোপের সবচেয়ে বড় কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প "ডাটেলন-৪ কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্প" (অনেকে শুনেছেন হয়তো ১৯৬৯ সনে বন্দ করে দেওয়া প্রকল্প আবার নতুন করে ২০০৭ সনে রিএক্টিভের আবেদন করে E.ON) গত ১০ বছর থেকে একের পর এক আদালতের রিট আবেদনের হয়রানি কাটিয়ে উঠতে পারেনি, আর ১৫ হাজার ডাটেলন বাসি দেরকে কেউ "জামাতি-বামটি" বানাবার চেষ্টা না করে আদালতের বিধি অনুসরারে প্রকল্পের নিরাপত্তার ও জনগণের নিরাপত্তার কাজে সরকার সহায়তা করে ও বিদ্যুৎ কোম্পানি নিরাপত্তা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় - তখন বলি Good governance is participatory আর হাঁ চীন তো ১৪ বিলিয়ন দেবার প্রতিশ্রুতি দিলো একটি সোলার বিদ্যুৎ প্রকল্প ২ বিলিয়ন এ তৈরী করা যায় যেখানথেকে ৬০০-৮০০ মেগা ওয়াট বিদ্যুৎ ৩০-৪০ বছর পর্যন্ত অনায়াসে উৎপাদন করা যায় সেদিকে কেন যাচ্ছেন না সরকার?

পৃথিবীর বয়স ৪.৫ বিলিয়ন বছর প্রতিটি মহাদেশেই কয়লার মৌজুদ আছে প্রচুর তাইবলে কি সব কয়লা জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করতে হবে? পৃথিবীর নিজস্ব প্রয়োজনেই কয়লা তার জল পরিশোধন (ফিল্টার) ও বায়ু শোধনের জন্য ব্যবহার করে আরো ৪.৫ বিলিয়ন বছর বেঁচে থাকুক সেটাই হওয়া উচিত প্রকৃতির কাছে আমাদের দায়বদ্ধতা। একবিংশ শতাব্দীতে জ্বালানির অনেক বিকল্প আছে, যেমন সূর্য, বায়ু, সমুদ্র শক্তি, ভূথার্মাল শক্তি ইত্যাদি The earth receives more energy from the Sun in just one hour than the world's population uses in a whole year. ভারত সহো সারা বিশ্বে উন্নত দেশে এখন আর কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের কথা ভাবছে না কেউ, সম্প্রতি ভারতের কামুথি শহরে পরিবেশ বান্ধব বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করা হয়েছে। এখান থেকে উৎপাদিত সবুজ জ্বালানি অন্তত ৩ লাখ গৃহের বিদ্যুৎ চাহিদা পূরণ করবে। জার্মানি ২০২২ সনের মধ্যে সমস্ত পরমাণু শক্তি চালিত বিদ্যুৎ কেন্দ্র বন্দ করে দিচ্ছে তার পরিবর্তে কি বিশাল গিগা ওয়াট সোলার প্লান্ট তৈরী করছে, এগুলোই হওয়া উচিত আমাদের আগামী দিনের অনুপ্রেরণা।



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ