১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৭ম বর্ষ ০৩ সংখ্যা: বার্লিন, সোমবার ১৫জানু–২১জানু ২০১৮ # Weekly Ajker Bangla – 7th year 03 issue: Berlin, Monday 15Jan-21Jan 2018

জার্মানিতে মহাজোট সরকার গড়ার আলোচনা শুরু করবে এসপিডি

এসপিডি দল এবার ইউনিয়ন শিবিরের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চলেছে

প্রতিবেদকঃ DW তারিখঃ 2018-01-22   সময়ঃ 05:04:31 পাঠক সংখ্যাঃ 54

রবিবার বন শহরে এসপিডি দলের সম্মেলনে মহাজোট সরকার গড়ার আলোচনার পক্ষে সমর্থন আদায় করতে পেরেছেন শীর্ষ নেতা মার্টিন শুলৎস৷ কোয়ালিশন চুক্তি সম্পর্কে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন দলের সদস্যরা৷

জার্মানির বর্তমান রাজনৈতিক অচলাবস্থা কাটানোর চাবিকাঠি এসপিডি দলের হাতে৷ তারা ইউনিয়ন শিবিরের সঙ্গে আবার মহাজোট সরকার গঠন করলে জার্মানি, তথা ইউরোপে স্বস্তির নিঃশ্বাস পড়বে৷ কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে এসপিডি দলের নেতৃত্ব এই গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত একা গ্রহণ করতে নারাজ৷ দলের মধ্যে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় ধাপে ধাপে সেদিকে এগোনোর পথে এগোচ্ছেন শীর্ষ নেতা মার্টিন শুলৎস-সহ অন্যান্য নেতারা৷ তারই আওতায় রবিবার বন শহরে দলের প্রায় ৬৪০ জন ডেলিগেটের মধ্যে প্রায় ৫৬ শতাংশ মহাজোট গড়ার আলোচনার পক্ষে সমর্থন জানালেন৷ তবে এটাই শেষ পদক্ষেপ নয়৷ শেষ পর্যন্ত মহাজোট নিয়ে দুই শিবির ঐকমত্যে এলে এসপিডি দলের প্রায় ৪ লক্ষ ৪০ হাজার সদস্যকে সেই কোয়ালিশন চুক্তির প্রতি সমর্থন জানাতে হবে৷ তবেই সরকার গঠন করা সম্ভব হবে৷

চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের নেতৃত্বে আরও একবার মহাজোট সরকারে যোগ দিলে দলের ভাবমূর্তির আরও ক্ষতি হবে বলে আশঙ্কা করছে এসপিডি দলের একটা বড় অংশ৷ রবিবার তারা তাদের যুক্তি তুলে ধরলেন৷ তাঁদের মতে, একের পর এক মহাজোটের অংশ হয়ে এসিপিডি তার নিজস্ব চরিত্র অনেকটা হারিয়ে ফেলেছে এবং ভোটারদের আস্থা হারিয়েছে৷ গত নির্বাচনে ঐতিহাসিক বিপর্যয়ের পর শিক্ষা নিয়ে বিরোধী আসনে বসা উচিত বলে তাঁরা মনে করেন৷ অন্যদিকে দলের নেতৃত্ব দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে জাতির স্বার্থে সরকারের অংশ হবার পক্ষে৷ নতুন নির্বাচন হলে এসপিডি আরও সমর্থন হারাবে বলে মনে করেন তাঁরা৷ শেষ পর্যন্ত সামান্য ব্যবধানে হলেও এই যুক্তির প্রতি সমর্থন আদায় করতে পেরেছেন তাঁরা৷ সেইসঙ্গে দলের মধ্যে এমন খোলামেলা বিতর্ককে ইতিবাচক হিসেবে তুলে ধরছেন তাঁরা৷

এসপিডি দল এবার ইউনিয়ন শিবিরের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চলেছে৷ চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত এসপিডি দলের সদস্যদের হাতে থাকায় ইউনিয়ন শিবিরে বেশ অস্বস্তি কাজ করবে৷ কারণ, এসিপিডি দলের বেশিরভাগ দাবি মেনে না নিলে সরকার গড়ার দ্বিতীয় প্রচেষ্টা বিফল হবে৷

এসবি/এসিবি (রয়টার্স, এএফপি)



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ