২১ আগস্ট ২০১৮ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৭ম বর্ষ ১০ সংখ্যা: বার্লিন, সোমবার ০৫মার্চ –১১মার্চ ২০১৮ # Weekly Ajker Bangla – 7th year 10 issue: Berlin, Monday 05Mar-11Mar 2018

উলটোপথে ভিআইপিদের গাড়ি ‘হালাল' করতে ভিআইপি লেন!

ঢাকায় প্রয়োজনের তুলনায় সড়ক আছে এক তৃতীয়াংশ

প্রতিবেদকঃ DW তারিখঃ 2018-02-06   সময়ঃ 01:13:49 পাঠক সংখ্যাঃ 168

ঢাকার সড়কে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি বা ভিআইপিদের জন্য আলাদা লেন করার প্রস্তাবের বিরোধিতা করেছেন নগর পরিকল্পনাবিদ, পরিবহণ বিশেষজ্ঞ ও পরিবহণ মালিকরা৷ বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমেও বইছে সমালোচনার ঝড়৷

সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকের পর মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম জানান, ‘‘ঢাকায় একই সড়কে ভিআইপি ও অ্যাম্বুলেন্সসহ পুলিশের জরুরি সেবা দিতে সংশ্লিষ্ট সংস্থার গাড়ি চলাচলে রাজধানীতে আলাদা লেন করার সম্ভাব্যতা যাচাই-বাছাইয়ের প্রস্তাব দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ৷ সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রণালয়কে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সম্প্রতি এ প্রস্তাব দেয়৷''

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘‘বিশেষ করে ইমার্জেন্সি সার্ভিসের জন্য আলাদা লেন দরকার৷ ভিআইপিরা এত গুরুত্বপূর্ণ নন৷ অ্যাম্বুলেন্সে যে লোকটা মারা যাচ্ছেন, তাঁর জন্য ইমার্জেন্সি সার্ভিস দরকার৷ এছাড়া ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশের অনেক সময় ইমার্জেন্সি সার্ভিস দরকার হয়৷''

মন্ত্রিসভা সড়ক পরিবহণ ও মহাসড়ক বিভাগকে ভিআইপিদের জন্য আলাদা একটা লেন করার জন্য কোনো নির্দেশনা দিয়েছে কিনা জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘‘মন্ত্রিসভা এটা বলেনি৷ মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে একটা ‘নর্মাল' অনুরোধ করা হয়েছে, বিষয়টি পরীক্ষা করে দেখার জন্য৷''

তিনি আরো বলেন, ‘‘পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ভিআইপিদের জন্য আলাদা লেন আছে, আমাদের দেশেও সেটা করা যায় কিনা, সেটা পরীক্ষা করে দেখার অনুরোধ করা হয়েছে মাত্র৷ ভিআইপিরা প্রায় সময় ডান দিক দিয়ে যান, উলটো দিক দিয়ে যান৷ এতে নানা ধরনের অসুবিধা হয়৷ ভিআইপিদের অনেক সময় (উলটো পথে) যাওয়ার প্রয়োজন হয়৷''

নগর পরিকল্পনাবিদ মোবাশ্বের হোসেন সরকারের এই ভিআইপি লেনের চিন্তা-ভাবনার ব্যাপারে ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘ফ্লাইওভার বানিয়ে যেমন সড়কের নীচের ৮০ শতাংশ রাস্তা কমিয়ে ফেলা হয়েছে, তেমনি এই সিদ্ধান্ত আরো নতুন সংকট তৈরি করবে৷ রাস্তার ধারণক্ষমতা না বাড়িয়ে সরকারের এমন সিদ্ধান্ত সড়ক ব্যবস্থাপনায় আরও বিশৃঙ্খলা তৈরি করবে৷ কারণ ঢাকা শহরে যে রাস্তা আছে, সেখান থেকেই আরেকটি নতুন ভিআইপি লেন তৈরি করা হবে৷ শতকরা ৮০ ভাগ মানুষ গণপরিবহণে যাতায়ত করেন৷ তাঁদের রাস্তার বড় একটি অংশ কেড়ে নিয়ে খুবই খুদ্র একটি অংশকে সুবিধা দিতে এই প্রস্তাব দেয়া হয়েছে৷''

তিনি বলেন, ‘‘ভিআইপিদের পথ ‘হালাল' করতে অ্যাম্বুলেন্সসহ জরুরি সেবার কথা বলা হচ্ছে৷ অ্যাম্বুলেন্স বা পুলিশের জরুরি গাড়ি উলটো পথে চলতে বাধা নাই৷ ঢাকা শহরে যে যানজট তাতে ভিআইপিরা যদি ভিআইপি লেনে চলাচল করেন, তাহলে তাঁরা জনরোষের মুখে পড়ে গণপিটুনির শিকার হতে পারেন৷ তাছাড়া ভিআইপি লেন ন্যায়-নীতি বিরোধীও৷''

ঢাকায় সড়কের পরিমাণ মোট আয়তনের ৭ ভাগের বেশি নয়৷ কিন্তু একটি শহরে মোট আয়তনের কমপক্ষে ৩০ ভাগ সড়ক থাকা প্রয়োজন বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা৷ এর মানে হলো, প্রয়োজনের মাত্র এক তৃতীয়াংশ সড়ক আছে এই শহরে৷ ঢাকা শহরের মোট এলাকা ১৩৫৩ বর্গ কিলোমিটার আর বর্তমান রাস্তার আয়তন ২,২০০ কিলোমিটার, যার মধ্যে ২১০ কিলোমিটার প্রধান সড়ক৷ সুতরাং প্রয়োজনের তুলনায় সড়ক আছে এক তৃতীয়াংশ৷ বিপরীতে গত পাঁচ বছরে যানবাহন বেড়েছে দ্বিগুণেরও বেশি৷ CLICK IMAGE FOR AUDIO

এমনিতেই ঢাকায় ১৫ ভাগ যাত্রী দখল করে আছেন মোট সড়কের ৭০ ভাগ৷ স্ট্র্যাটেজিক ট্রান্সপোর্ট প্ল্যান বা এসটিপি-র হিসাব অনুযায়ী, বর্তমানে ঢাকায় কম-বেশি ১৫ ভাগ যাত্রী প্রাইভেট কারে যাতায়াত করেন৷ এই প্রাইভেট কারের দখলে থাকে ৭০ ভাগেরও বেশি রাস্তা৷ বাকি ৮৫ ভাগ যাত্রী অন্য কোনো ধরনের গণপরিবহণ ব্যবহার করেন৷ অর্থাৎ তারা গণপরিবহণ সড়কের মাত্র ৩০ ভাগ এলাকা ব্যবহারের সুযোগ পান৷ জনসংখ্যার হিসেবে শতকরা এক ভাগের মতো মানুষের প্রাইভেট কার আছে৷ কিন্তু সড়ক চলে গেছে তাদের দখলে৷

মোবাশ্বের হোসেন বলেন, ‘‘এই যখন অবস্থা, তখন ভিআইপিদের জন্য আলাদা লেন করা মানে হচ্ছে ওই ৩০ ভাগ জায়গায়ও ভাগ বসানো৷ স্ট্র্যাটেজিক ট্রান্সপোর্ট প্ল্যান বা এসটিপি বাস্তবায়ন করলে ঢাকায় যানজট কমবে৷ এতে গণপরিবহণ ব্যবস্থা উন্নত এবং সড়কের পরিকল্পিত ব্যবহারে কথা বলা আছে৷ ব্যক্তিগত যানবাহন কমানোর কথা আছে৷''

এছাড়া গণপরিবহণবিশেষজ্ঞ বুয়েটের অধ্যাপক ড. শামসুল হক সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘‘ঢাকার সড়কগুলোতে ছ'টি লেনের বেশি নেই৷ কোথাও কোথাও এক বা দুই লেনও রয়েছে৷ এর মধ্যে ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিটের (এমআরটি) জন্য একটি ও বাস র‌্যাপিড ট্রানজিটের (বিআরটি) জন্য একটি, মোট দু'টি লেন চলে যাচ্ছে৷ এর সঙ্গে যদি ভিআইপি বা জরুরি সেবার নামে আরও একটি লেন চলে যায়, তাহলে তো আর সড়কই থাকছে না৷ একটি গণতান্ত্রিক জনবান্ধব হিসেবে পরিচিত সরকার এমন অ-জনবান্ধব সিদ্ধান্ত নিতে পারে না৷''

ঢাকা সড়ক পরিবহণ মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েতুল্লাহ ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘আলাদা লেন হতে পারে, তবে তা হতে হবে গণপরিবহণের জন্য৷ যেহেতু নগরীর ৮০ ভাগ মানুষ গণপরিবহণ ব্যবহার করেন, তাই শুধু গণপরিবহণের জন্য যদি আলাদা লেন করা হয় তাহলে যানজট কমবে৷ অধিকাংশ মানুষ উপকৃত হবেন৷ সেখানে ভিআইপিদের গাড়িও চলতে পারে৷ কিন্তু শুধু ভিআইপিদের জন্য আলাদা লেন করলে, তাতে পরিস্থিতি আরো খারাপ হবে৷''

এদিকে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে এই ভিআইপিদের জন্য আলাদা লেন করার বিষয়টি সমালোচনার মুখে পড়েছে৷ কেউ বলেছেন, ভিআইপিদের জন্য আলাদা শহর করতে৷ আবার কেউ বলেছেন তাঁদের জন্য আলাদা হেলিকপ্টার সার্ভিস চালু করতে৷''

 



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ