২১ আগস্ট ২০১৮ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৭ম বর্ষ ১০ সংখ্যা: বার্লিন, সোমবার ০৫মার্চ –১১মার্চ ২০১৮ # Weekly Ajker Bangla – 7th year 10 issue: Berlin, Monday 05Mar-11Mar 2018

উত্তর কোরিয়ার প্রতিনিধিরা আবার বিদেশে যেতে পারবেন

নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে জাতিসংঘ

প্রতিবেদকঃ DW তারিখঃ 2018-02-09   সময়ঃ 22:10:20 পাঠক সংখ্যাঃ 191

অলিম্পিক গেমসের প্রতিনিধি দলে অংশ নেয়ার জন্য উত্তর কোরিয়ার প্রতিনিধি দলের বেশ কিছু সদস্যের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে জাতিসংঘ৷ এতদিন তাঁদের বিদেশে যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা ছিল৷

সে সময় গ্রিসের নগর রাষ্ট্রগুলির মধ্যে যুদ্ধ লেগেই থাকতো৷ বহু চেষ্টা করেও বৈরিতায় রাশ টানা যেতো না৷ অলিম্পিক গেমস শুরু হয়েছিল সেই যুদ্ধ থামানোর জন্যই৷ এবং কী আশ্চর্য, যুদ্ধের দামামা খানিকটা হলেও কমেছিল সেই কয়েক শতাব্দী আগে৷

একই পথে কি হাঁটছে উত্তর এবং দক্ষিণ কোরিয়া? যুদ্ধ এবং দু'দেশের রক্তক্ষয়ী ভাগ দেখেছে ইতিহাস৷ দেখেছে, যে কোনো ঘটনায় দু'দেশের মধ্যে যুদ্ধকালীন পরিস্থিতি৷ গত একবছরে উত্তর কোরিয়া অ্যামেরিকাসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের বিরুদ্ধে পারমানবিক অস্ত্র ব্যবহারেরও হুমকি দিয়েছে৷ এক সময় মনে হয়েছিল, অ্যামেরিকা এবং দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে উত্তরের যুদ্ধ লাগলো বলে৷

অথচ উইন্টার অলিম্পিক্স বা শীতকালীন অলিম্পিক সেই সমস্ত বৈরিতায় সাময়িক জল ঢেলে দিয়েছে৷ দলে দলে উত্তর কোরিয়ার প্রতিনিধিরা পৌঁছে গিয়েছেন দক্ষিণে৷ শুধু তাই নয়, উত্তর কোরিয়ার যে সমস্ত রাষ্ট্রীয় প্রতিনিধির অন্য দেশে যাওয়ার ওপর জাতিসংঘ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল, তা-ও সাময়িকভাবে তুলে নেওয়া হচ্ছে৷

চো হুই উত্তর কোরিয়ার জাতীয় ক্রীড়া অ্যাকাডেমির চেয়ারম্যান৷ এর আগে দেশের অন্যান্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বও তিনি সামলেছেন৷ এবং সে সময়েই প্রোপাগান্ডা করার অভিযোগে জাতিসংঘ তাঁর বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করে৷ কিন্তু অলিম্পিকে তিনি উত্তর কোরিয়ার অন্যতম অতিথি৷ ফলে দক্ষিণ কোরিয়া জাতিসংঘের কাছে আবেদন করে যে, চো'য়ের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হোক৷ জাতিসংঘও সেই আবেদনে সাড়া দেয়৷ শুধু তাই নয়, উত্তর কোরিয়ার প্রতিনিধিদের অন্য দেশ থেকে বিলাসী সামগ্রী কেনার উপরেও নিষেধাজ্ঞা ছিল৷ সাময়িক সময়ের জন্য সেই নির্দেশও শিথিল করা হয়েছে৷ সবচেয়ে বড় কথা, কিম জং উনের সবচেয়ে ছোট বোন স্বয়ং দক্ষিণ কোরিয়ায় আসছেন অলিম্পিক্স উপলক্ষ্যে৷ সে দেশের ইতিহাসে এ এক বিরল ঘটনা৷

সব মিলিয়ে এক সুন্দর মৈত্রীভাব তৈরি হয়েছে উইন্টার অলিম্পিক্সকে ঘিরে৷ এখন দেখার, অলিম্পিক গেমসের পরেও এই সৌহার্দ্য বজায় থাকে কিনা!

এসজি/ এসিবি (ডিডাব্লিউ,রয়টার্স)

উত্তর কোরিয়ার চিয়ার গার্ল

উত্তর কোরিয়া থেকে ২২৯ জন চিয়ার গার্ল এসে পৌঁছেছেন দক্ষিণ কোরিয়ায়৷ অলিম্পিক ভিলেজে যাওয়ার আগে দক্ষিণ কোরিয়ার গ্যাপিইয়ং এক্সপ্রেসওয়ের একটি রেস্টহাউসে সেজে নেন তাঁরা৷

কালো টুপি আর রক্তলাল কোটে সেজে এসেছেন উত্তর কোরিয়ার চিয়ার গার্লরা৷ শীতকালীন অলিম্পিকে এটাই তাঁদের সরকারি পোশাক৷ লাল কোটের কলার আর কাফলিং অবশ্য কালো ফারের তৈরি৷ প্রত্যেকের বুকেই লাগানো দেশের পতাকার ব্যাজ৷ খেলার সময়েও দেশের পতাকা থাকবে তাঁদের হাতে৷ ব্যাজও লাগানো থাকবে বুকে৷

উত্তর কোরিয়া থেকে মোট ২৮০ জনের প্রতিনিধি দল এসেছে দক্ষিণে৷ তার মধ্যে ২২৯ জনই চিয়ার গার্ল৷ এঁরা সকলেই থাকবেন গেম ভিলেজের কাছে ইনজে হোটেলে৷ শোনা যাচ্ছে অলিম্পিক উপলক্ষ্যে দক্ষিণ কোরিয়ায় আসবেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সবচেয়ে ছোট বোন কিম ইও জং৷ তবে তিনি কবে আসবেন, তা এখনো জানা যায়নি৷

 



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ