২২ আগস্ট ২০১৮ ইং

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য হওয়ার পথে জার্মানি

জাতিসংঘের এই পরিষদ এমন সিদ্ধান্ত নিতে পারে যা যে কোনো দেশ আইনগতভাবে মানতে বাধ্য

প্রতিবেদকঃ DW তারিখঃ 2018-05-05   সময়ঃ 04:02:55 পাঠক সংখ্যাঃ 98

জাতিসংঘের ১৫ সদস্যের নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যপদ পেতে জার্মানির সম্ভাবনা বেড়েছে কেননা ইসরায়েল প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেছে৷ ফলে পরিষদের অস্থায়ী দু’টি সদস্যপদ পাওয়ার পথে আরো এগিয়ে গেল জার্মানি এবং বেলজিয়াম৷

ইসরায়েলের জাতিসংঘ মিশন শুক্রবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘‘সঙ্গী এবং ভালো বন্ধু রাষ্ট্রগুলোর সঙ্গে আলাপ-আলোচনার পর ইসরায়েল জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যপদের আবেদন স্থগিত করেছে৷''

‘‘এটা সিদ্ধান্ত হয়েছে যে আমরা আমাদের মিত্রদের সঙ্গে কাজ করবো যাতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের আলোচনায় ইসরায়েলের অংশগ্রহণের এবং সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে দেশটির মতামত প্রদানের অধিকার থাকে,'' বলে উল্লেখ করা হয়েছে বিবৃতিতে৷

 

ইসরায়েল সরে যাওয়ায় এখন পশ্চিম ইউরোপ এবং অন্যান্যদের জন্য বরাদ্দ থাকা নিরাপত্তা পরিষদের দু'টি আসনের জন্য প্রার্থী হিসেবে রয়েছে শুধু জার্মানি এবং বেলজিয়াম৷ ফলত দেশ দু'টির নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যপদ পাওয়ার পথে দৃশ্যত বড় কোনে বাধা থাকলো না৷

জাতিসংঘে নিযুক্ত জার্মানির রাষ্ট্রদূত ক্রিস্টোফ হয়েসগেন অবশ্য জার্মান বার্তাসংস্থা ডিপিএকে জানিয়েছেন যে, ইসরায়েল যে সদস্যপদের আবেদন প্রত্যাহার করতে পারে সে গুঞ্জন আগে থেকেই ছিল৷ এখন ইসরায়েল সরে যাওয়ায় বার্লিনের সদস্যপদ পাওয়ার পথ সহজ হয়েছে বটে, তবে পুরোপুরি নিশ্চিত হয়নি৷

কয়েকজন কূটনীতিক অবশ্য জানিয়েছেন, ইসলায়েল বুঝে গিয়েছে যে জাতিসংঘের ১৯৩ সদস্যের মধ্যে অনেকেই দেশটির সদস্যপদের আবেদনের পক্ষে ভোট দেবে না৷ ফলে জার্মানি এবং বেলজিয়ামের কাছে দেশটির পরাজয় মোটামুটি নিশ্চিত ছিল৷

প্রসঙ্গত, আন্তর্জাতিক শান্তি এবং নিরাপত্তা রক্ষার দায়িত্ব জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের৷ এটির পাঁচ স্থায়ী সদস্য হচ্ছে ব্রিটেন, চীন, ফ্রান্স, রাশিয়া এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র৷ পরিষদের বাকি দশটি অস্থায়ী আসনে জাতিসংঘের সদস্যদের ভোটাভুটির মাধ্যমে নির্বাচিত বিভিন্ন দেশ দুই বছর মেয়াদে দায়িত্ব পালন করে৷

জাতিসংঘের এই পরিষদ এমন সিদ্ধান্ত নিতে পারে যা যে কোনো দেশ আইনগতভাবে মানতে বাধ্য৷ এছাড়া বিভিন্ন দেশের উপর নিষেধাজ্ঞা কিংবা শক্তি প্রয়োগের ক্ষমতাও এই পরিষদের রয়েছে৷ পরিষদের দশটি অস্থায়ী আসনের পাঁচটি সরাসরি ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত হয়৷

বাকি পাঁচটি আসনের জন্য ভোটাভুটি হলেও সেগুলোর একটি আফ্রিকা, একটি এশিয়া-প্যাসিফিক, একটি ক্যারাবীয় অঞ্চল এবং দু'টি পশ্চিম ইউরোপ ও অন্যান্যদের জন্য বরাদ্দকৃত রয়েছে৷ অর্থাৎ এই আসনগুলোর সদস্যদের উল্লেখিত অঞ্চলগুলো থেকে হতে হবে৷ নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হতে হলে জার্মানি ও বেলজিয়ামকে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে আয়োজিত ভোটাভুটিতে সদস্য রাষ্ট্রগুলোর দুই তৃতীয়াংশের ভোট পেতে হবে৷

এআই/ডিজি (রয়টার্স, এপি)

 



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ