১৮ অক্টোবর ২০১৮ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৭ম বর্ষ ২১ সংখ্যা: বার্লিন, সোমবার ২১ মে– ২৭মে ২০১৮ # Weekly Ajker Bangla – 7th year 21 issue: Berlin, Monday 21May-27May 2018

ইউরোপে ৩০ বছরের যুদ্ধ

এ যুদ্ধ চলে ১৬১৮ থেকে ১৬৪৮ পর্যন্ত

প্রতিবেদকঃ DW তারিখঃ 2018-05-23   সময়ঃ 06:11:53 পাঠক সংখ্যাঃ 139

প্রথমে ক্যাথলিক বনাম প্রোটেস্টান্ট, পরে আঞ্চলিক সংঘাত থেকে ছড়িয়ে পড়েছিল ইউরোপের কলঙ্কজনক যুদ্ধ ‘দ্য থার্টি ইয়ার্স ওয়ার’৷ ৩০ বছর মেয়াদি এ যুদ্ধ চলে ১৬১৮ থেকে ১৬৪৮ পর্যন্ত৷ দেখুন ৪০০ বছর আগের সেই যুদ্ধের সারসংক্ষেপ৷

লুটপাট ও সহিংসতা

খাবার পাওয়া যায় বা খাবার মজুদ রাখা যায় – এমন জায়গা ঘিরেই বেশিরভাগ যুদ্ধ হয়েছে ইউরোপে৷ জানা যায়, সে সময় কৃষকদের ওপর অত্যাচার করা হতো, যাতে তারা নিজেদের মজুদ রাখা শস্য বের করে দেয়৷ সুইডিশ ভাড়াটে সেনাদের অত্যাচারের কথাও ইতিহাসে কুখ্যাত৷ তারা ‘সুইডিশ ড্রিংক’ নাম দিয়ে মলমূত্র আর নোংরা পানির একটি মিশ্রণ তৈরি করেছিল, যা কারাবন্দি বা আটকদের মুখে জোর করে ঢেলে দেওয়া হতো৷

 

ক্যাথলিক বিজয় ঠেকালেন সুইডিশ রাজা

জার্মান প্রোটেস্টান্টদের বাঁচাতে সুইডিশ রাজা দ্বিতীয় গুস্তাভ অ্যাডল্ফ ১৬৩০ সালে যুদ্ধে যোগ দেন৷ এ সময় ইউরোপজুড়ে তাঁর প্রভাব ছড়িয়ে পড়ে৷ পবিত্র রোমান সাম্রাজ্যের নেতৃত্বের ক্যাথলিকদের বিজয়ের পথে তিনি বাধা হয়ে দাঁড়ান৷ এছাড়া যুদ্ধের ময়দানে তিনি নিজেই ছিলেন দলের সেনাপতি৷

 

রাজার মৃত্যু

‘দ্য থার্টি ইয়ার্স ওয়ার’-এর অন্যতম বড় যুদ্ধ হয়েছিল জার্মানির লুৎসেন নামের একচি জায়গায়, ১৬৩২ সালের ১৬ নভেম্বর৷ এই যুদ্ধে প্রচুর জানমালের ক্ষতি হওয়া সত্ত্বেও কোনো পক্ষ জেতেনি৷ এই যুদ্ধে রোমান ক্যাথলিকদের নেতৃত্ব দেন জেনারেল আলব্রেশ্ট ফন ভালেনস্টাইন৷ অশ্বারোহী বাহিনীর হাতে রাজা দ্বিতীয় গুস্তাভ নিহত হন৷ তাতে অবশ্য ক্যাথলিক বাহিনী একটি সাময়িক প্রচারণামূলক জয় পায়৷ 

 

মৃত্যুর মুনাফাখোরেরা

‘দ্য থার্টি ইয়ার্স ওয়ার’ কারো কারো জন্য প্রচুর মুনাফা নিয়ে আসে৷ বিশেষ করে সেনা নিয়োগ ও সংগঠিত সামরিক বাহিনী তৈরির অছিলায় মুনাফা পকেটে ভরেন অনেকেই৷ এদের মধ্যে আলব্রেশ্ট ফন ভালেনস্টাইন ছিলেন অত্যন্ত সফল৷ তিনি নতুন করে শুল্ক দেওয়ার একটি নিয়ম চালু করেন, যাতে কৃষক, বণিক ও সাধারণ নাগরিকরা সেনাদের সমস্ত খরচ দিতে বাধ্য হয়৷ তাঁর মূল দর্শন ছিল – যুদ্ধ তার নিজের খরচ তুলে আনবে৷ 

 

ফাঁসি

ফাঁসি আর নির্যাতন তখনকার নিত্যদিনের ব্যাপার ছিল৷ সেই সময়কার ফরাসি শিল্পী জাক কালো-র যুদ্ধ নিয়ে আঁকা ছবিগুলিতে তা স্পষ্ট ফুটে ওঠে৷ কলো তাঁর ছবিতে নাগরিকদের একই সাথে পরিস্থিতির শিকারের পাশাপাশি অপরাধী হিসেবেও দেখানোর চেষ্টা করেছিলেন৷ তাঁর আঁকা ছবি ‘দ্য হ্যাঙ্গিং’ এ সময়কার অন্যতম একটি ছবি৷  

 

মে ১৬৪৮: শান্তির ঐতিহাসিক শপথ

অনেকেই বিশ্বাস করতে পারেননি যে দীর্ঘ এই যুদ্ধের পরও শান্তি সম্ভব৷ কিন্তু জার্মানির প্রোটেস্টান্ট শহর ওসনাব্র্যুক এবং ক্যাথলিক শহর ম্যুনস্টারে পাঁচ বছর ধরে শান্তি আলোচনা চলে৷ পরে ম্যুনস্টারে যুদ্ধে জড়িত সব পক্ষই শান্তিচুক্তিতে স্বাক্ষর করে৷ ‘দ্য পিস অফ ওয়েস্টফেলিয়া’ নামের ঐ শান্তিচুক্তিকে এ যুগে সংঘাত সমাধানের একটি দৃষ্টান্ত হিসেবে দেখা হয়৷

 



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ