১৮ অক্টোবর ২০১৮ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৭ম বর্ষ ২৩ সংখ্যা: বার্লিন, সোমবার ০৪জুন–১০জুন ২০১৮ # Weekly Ajker Bangla – 7th year 23 issue: Berlin, Monday 04Jun -10Jun 2018

এবারের বিশ্বকাপ রাশিয়ার রাজনৈতিক হাতিয়ার?

উত্তেজনার সেই মুহূর্তগুলো

প্রতিবেদকঃ DW তারিখঃ 2018-06-07   সময়ঃ 03:24:25 পাঠক সংখ্যাঃ 124

প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ আয়োজন করতে যাচ্ছে রাশিয়া৷ ফুটবলের সর্বোচ্চ এই আসর রাজনৈতিকভাবে এর আগে কখনোই এতটা গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠেনি৷ কখন বন্ধ হবে রাজনীতি, শুরু হবে খেলার মজা, ফুটবলপ্রেমীরা এখন সে অপেক্ষায়৷

একটি আধুনিক ও বহুজাতিক দেশ হিসেবে বিশ্বের সামনে নিজেকে তুলে ধরার এত বড় সুযোগ রাশিয়ার সামনে এর আগে আসেনি৷ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিনও রাজনীতির পাশাপাশি খেলাধুলাতেও বিশ্বের বৃহত্তম দেশটির গুরুত্ব তুলে ধরার সুযোগ হাতছাড়া করতে নারাজ৷

বিশ্বকাপকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে দেখছেন পুটিন৷ ২০১০ সালে প্রধানমন্ত্রী থাকার সময় পুটিন বিশ্বকাপ আয়োজনে রাশিয়ার দাবির পক্ষে প্রচারণা চালাতে নিজেই জুরিখ গিয়েছিলেন৷ সে সময় ফিফা কর্মকর্তাদের ঘুষ দেয়ার অভিযোগও ওঠে রুশ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে৷ বিশ্বকাপ আয়োজনের নিলাম প্রক্রিয়া নিয়ে ফিফাকে একাধিকবার তদন্তের সম্মুখীনও হতে হয়েছে৷

 

ঘুষ ও দুর্নীতির অভিযোগে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার প্রেসিডেন্ট পদেও এসেছিল পরিবর্তন৷ রাশিয়া অবশ্য বরাবরের মতোই সব অভিযোগ অস্বীকার করে এসেছে৷

২০১৪ সালে সোচিতে আয়োজিত শীতকালীন অলিম্পিকে রাশিয়ার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় তত্ত্বাবধানে ডোপিংয়ের অভিযোগ ওঠে৷ এরপর পশ্চিমা বিশ্বের দৃষ্টিতে রাশিয়ার অপরাধের তালিকা দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হয়েছে৷ ইউক্রেন আক্রমণ, সিরিয়ায় আগ্রাসন, জার্মান সরকারের বিরুদ্ধে সাইবার আক্রমণ, যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্সের নির্বাচনে হস্তক্ষেপ কেবলই রাশিয়াকে করেছে কোণঠাসা৷

সাবেক গুপ্তচর সের্গেই স্ক্রিপলের ওপর ‘আক্রমণ'ও পূর্ব–পশ্চিমের মধ্যে সম্পর্কে ফাটল ধরিয়েছে৷ তবে, পশ্চিম ইউরোপের চেয়ে আফ্রিকা, এশিয়া ও লাতিন আমেরিকাতে রাশিয়ার ভাবমূর্তি সম্পূর্ণ আলাদা৷

এই সব বিষয়েই অবগত রাশিয়ার উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা৷ রুশ পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষের চেয়ারম্যান ভ্যালেন্টিনা মাতভিয়েঙ্কো অবশ্য পুরো দায় চাপিয়েছেন বিদেশি সাংবাদিকদের ওপর৷ উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে রাশিয়ার ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করা হচ্ছে বলে দাবি তাঁর৷ এখন লাখ লাখ মানুষ আসছে রাশিয়ায়, সত্যিকার রুশদের দেখবে তাঁরা৷ তথ্যের যে যুদ্ধ চলছে রাশিয়ার বিরুদ্ধে, তা তাঁদের প্রভাবিত করবে না৷

এমনকি, পুটিনবিরোধী রাজনীতিক হিসেবে পরিচিত জনপ্রিয় ফুটল ধারাভাষ্যকার ভাসিলি উতকিনও খেলার সাথে রাজনীতি বেশি না মেশানোর আহ্বান জানিয়েছেন৷ ‘‘দেশের যে-কোনো ভোটারের মতো আমারও দেশের নেতৃত্ব নিয়ে আপত্তি আছে৷ কিন্তু কোনো দেশই বিশ্বকাপ বয়কট করেনি, রাশিয়ায় উপস্থিত হয়ে বিদেশি বন্ধুরা রাশিয়াকেই সমর্থন দিয়েছেন৷''

এডিকে/এসিবি (ডিপিএ)

উত্তেজনার সেই মুহূর্তগুলো

১৯৩০

প্রথম বিশ্বকাপের ফাইনাল৷ উরুগুয়ের মন্টিভিডিওতে স্বাগতিকরা মুখোমুখি আর্জেন্টিনার৷ ছবিটি আর্জেন্টাইনদের জালে উরুগুয়ের প্রথম বল ফেলার মুহূর্তের৷ আর্জেন্টিনাকে সেবার ২-৪ ব্যবধানে রানার্সআপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়৷

২০১৪

গত বিশ্বকাপে মেসির দিকেই চোখ ছিল সবার৷ কিন্তু মেসি আর্জেন্টিনাকে শিরোপা এনে দিতে পারেননি৷ সেই দুঃখে তো দেশের পক্ষে খেলাই ছেড়ে দেবার ঘোষণা দিয়েছিলেন তিনি৷ সে যাই হোক, পরে ফিরে এসেছেন৷ জার্মানি তাদের চতুর্থ শিরোপাটি ঘরে তোলে এ বছর৷ ফাইনালে অতিরিক্ত সময়ে গ্যোৎসের করা গোলে জয় নিশ্চিত করে তারা৷

 

 



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ