২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৭ম বর্ষ ২৭ সংখ্যা: বার্লিন, সোমবার ০২জুল–০৮জুল ২০১৮ # Weekly Ajker Bangla – 7th year 27 issue: Berlin, Monday 02Jul-08 Jul 2018

ফেরত যাওয়া রোহিঙ্গাদের গ্রেফতার করছে মিয়ানমার

দেশটির সরকার রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে সম্মত হয়েছে

প্রতিবেদকঃ DW তারিখঃ 2018-07-05   সময়ঃ 23:13:55 পাঠক সংখ্যাঃ 50

ফেরত যাওয়া রোহিঙ্গাদের মিয়ানমার গ্রেফতার করছে– এই তথ্য দিয়ে জাতিসংঘের মানবাধিকার সংস্থার প্রধান এই শরণার্থীদের ফেরত নেবার বিষয়ে দেশটির ‘আন্তরিকতা' নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন৷

একদিকে মিয়ানমার বলছে যে, গত আগস্ট থেকে সাত লাখ রোহিঙ্গা যারা দেশ ছেড়ে বাংলাদেশে পালিয়েছেন, তাদের ফেরত নেয়া হবে, অন্যদিকে যারা ফিরতে চাচ্ছেন তাদের গ্রেফতার করছে৷ জাতিসংঘে মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার জাইদ রা'দ আল হুসেইন জানান, তাঁর অফিস ৫৮ জন রোহিঙ্গাকে গ্রেফতার করার খবর পেয়েছে৷ তারা দেশে ফিরতে চেয়েছিলেন৷ কিন্তু গ্রেফতারের জন্য কোনো কারণ দেখায়নি দেশটি৷

উত্তর রাখাইন প্রদেশে এ পর্যন্ত ২০০ জনেরও কম রোহিঙ্গা ফেরত যেতে পেরেছেন বলে জানাচ্ছে জাইদের অফিস৷

‘‘রাষ্ট্রপতির ক্ষমা সাপেক্ষে এদের বুথিদং কারাগার থেকে তথাকথিত রিসেপশন সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে৷ তবে শর্ত হলো, তাদের একই রকমভাবে আটক থাকতে হবে৷'' জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে দেয়া রিপোর্টে মৌখিকভাবে জানান জাইদ৷

‘‘দেশটির সরকার রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে সম্মত হয়েছে৷ কিন্তু যারা ফেরত যাবার চেষ্টা করছে, সবাইকে না হলেও অনেককেই গ্রেফতার করছে,'' তিনি যোগ করেন৷

মিয়ানমারবাংলাদেশ থেকে রোহিঙ্গাদের ফেরত নেবার ব্যাপারে চুক্তি করেছে৷ অথচ রোহিঙ্গাদের একটি বড় অংশ যেতে চাচ্ছেন না৷ এর কারণ হিসেবে সেখানকার পরিস্থিতি এখনো শঙ্কাজনক বলে মনে করছেন জাতিসংঘের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা৷

রোহিঙ্গারা গত বছর আগস্টের শেষ দিকে মিয়ানমার আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর দ্বারা কঠিন নিগ্রহের শিকার হয়েছেন, যাকে জাতিসংঘ জাতি নিধন হিসেবে চিহ্নিত করেছে৷

জাইদ বলেন যে, এই নিপীড়ন বন্ধ হয়নি৷ এখনো ‘হত্যা ও ঘরবাড়ি জ্বালিয়ে দেয়া' অব্যাহত আছে৷

এ বছরও ১১ হাজার অধিবাসী রাখাইন থেকে পালিয়েছেন৷ জাতিসংঘবলছে, এর অর্থ এখনো সেখানে সহিংসতা চলছে, যার ফলে তারা পালাতে বাধ্য হয়েছেন৷ 

তবে জাতিসংঘ নিরাপত্তা কাউন্সিলে উপস্থিত মিয়ানমারের প্রতিনিধিরা এই অভিযোগ অস্বীকার করে দাবি করেছেন, এখানে তথ্য বিকৃত করা হয়েছে৷

জেডএ/এসিবি (এএফপি)

রোহিঙ্গাদের ইতিহাস

স্বাধীনতার আগে

বর্তমানে মিয়ানমার নামে পরিচিত দেশে ১২ শতক থেকে মুসলমানরা বাস করছে বলে দাবি অনেক ইতিহাসবিদ ও রোহিঙ্গা গোষ্ঠীর৷ হিউম্যান রাইটস ওয়াচের প্রতিবেদন বলছে, মিয়ানমার যখন ব্রিটিশ শাসনের অধীন (১৮২৪-১৯৪৮) ছিল তখন বর্তমানের ভারত ও বাংলাদেশ থেকে অনেকে শ্রমিক হিসেবে সেখানে গিয়েছিল৷ তবে তারা যেহেতু ব্রিটিশ আমলে এসেছে তাই স্বাধীনতার পর মিয়ানমার তাদের অবৈধ হিসেবে গণ্য করে৷ প্রতিবেদন পড়তে ‘+’ চিহ্নে ক্লিক করুন৷

 

 



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ