১৯ অক্টোবর ২০১৮ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৭ম বর্ষ ৩১ সংখ্যা: বার্লিন, সোমবার ৩০জুল–০৫অগা ২০১৮ # Weekly Ajker Bangla – 7th year 31 issue: Berlin, Monday 30Jul-05Aug2018

নির্বাচনে ‘ভুয়া খবরের' হুঁশিয়ারি ইইউ-র

সামাজির যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন দেশে নির্বাচন প্রভাবিত করার চেষ্টা

প্রতিবেদকঃ DW তারিখঃ 2018-08-01   সময়ঃ 02:28:52 পাঠক সংখ্যাঃ 86

২০১৯ সালে ইউরোপীয় নির্বাচন ‘ভুয়া খবর' এবং সাইবার হামলার আশংকায় আছে বলে হুঁশিয়ার করেছে ইউরোপীয় কমিশন৷ সোশাল মিডিয়া কোম্পানি এবং সদস্য রাষ্ট্রদের এ বিষয়ে সতর্ক থাকারও আহ্বান জানিয়েছে কমিশন৷

ইউরোপের নিরাপত্তা বিষয়ক প্রধান জুলিয়ান কিং ইইউর সব সদস্য রাষ্ট্রকে আশংকা প্রকাশ করেছেন, সামাজির যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন দেশে নির্বাচন প্রভাবিত করার চেষ্টা চলতে পারে৷ ২০১৬ সালে মার্কিন নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপ এবং ইইউ-ইউক্রেন চুক্তির গণভোটে হস্তক্ষেপের মতো ঘটনা ঘটতে পারে বলেও সতর্ক করেছেন তিনি৷

জার্মানির ফুঙ্কে মিডিয়া গ্রুপকে কিং বলেন, ‘‘সব দেশকেই এই বিষয়ে হুঁশিয়ার থাকতে হবে, এবং এ ধরনের ঘটনা প্রতিহত করতে আগে থেকেই পরিকল্পনা প্রস্তুত রাখতে হবে৷''

তিনি বলেন, ‘‘রাষ্ট্রীয় ও অন্যান্য ফ্যাক্টর যাতে আমাদের গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে যেন আমাদেরই বিরুদ্ধে কাজে না লাগাতে পারে, সে বিষয়ে সজাগ থাকতে হবে৷''

তবে শুধু রাষ্ট্র বা সরকার নয়, এ ব্যাপারে ইউটিউব এবং ফেসবুকের মতো সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমকেও দায়িত্ব নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন কিং৷ মিথ্যা তথ্য যারা ছড়াচ্ছে তাদের চিহ্নিত করা এবং ভুয়া অ্যাকাউন্ট ‘ডিলিট' করার ব্যাপারে তাদের আরো উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান তিনি৷ তিনি বলেন, ‘‘অনলাইনেও আমরা স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা দেখতে চাই৷''

 

আর ১০ মাস পরই ইউরোপীয় নির্বাচন৷ বিশ্লেষকদের আশংকা, ২৭ দেশে একসাথে ভোট চলায় নির্বাচনের এই ব্যাপ্তি আক্রান্ত হওয়ার আশংকাও বাড়িয়ে দিবে৷

তাঁদের আশংকা, অনেক ইউরোপীয় নাগরিকই যেহেতু ইউরোপের রাজনীতির সাথে পরিচিত নন, তাঁদের সহজেই ভুয়া খবরে প্রভাবিত করা সম্ভব হবে৷

ইইউ অবশ্য সোশ্যাল মিডিয়া ও বড় বড় বিজ্ঞাপনী সংস্থার মতো অনলাইন প্লাটফরমগুলোর সাথে মিলে মিথ্যা তথ্য ছড়ানো বন্ধে একটি কোড অব প্র্যাকটিস তৈরির কাজ করছে৷ সেপ্টেম্বরের মধ্যেই এর কাজ শেষ করার আশা তাঁদের৷

এডিকে/ডিজি (ডিপিএ)

 



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ