১৬ অক্টোবর ২০১৮ ইং
সাপ্তাহিক আজকের বাংলা - ৭ম বর্ষ ৩৯সংখ্যা: বার্লিন, সোমবার ২৪সেপ্ট–৩০সেপ্ট ২০১৮ # Weekly Ajker Bangla – 7th year 39 issue: Berlin, Monday 24Sep-30Sep 2018

সু চিকে দেয়া নাগরিকত্ব বাতিলে একমত ক্যানাডার সাংসদরা

জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য

প্রতিবেদকঃ DW তারিখঃ 2018-09-28   সময়ঃ 17:48:36 পাঠক সংখ্যাঃ 16

রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে পরিচালিত মিয়ানমার নিরাপত্তা বাহিনীর নৃশংস অভিযানের সমালোচনা করতে ব্যর্থ হওয়ায় অং সান সু চিকে দেয়া সম্মানজনক নাগরিকত্ব বাতিলের বিল ক্যানাডার সংসদে সর্বসম্মতভাবে পাস হয়েছে৷

এর আগে গত সপ্তাহে পাস হওয়া আরেক বিলে রোহিঙ্গা সংকটকে ‘গণহত্যা’ হিসেবে স্বীকৃতি দেন ক্যানাডার সাংসদরা৷

মিয়ানমারে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে অবদান রাখায় ২০০৭ সালে সু চিকে নাগরিকত্ব দিয়েছিল ক্যানাডা৷

দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রেস সচিব অ্যাডাম অস্টেন বলেন, ‘‘রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সংঘটিত গণহত্যার সমালোচনা করতে ব্যর্থ হওয়ায় যে বিল আনা হয়েছে, তার প্রতি সরকার সমর্থন জানিয়েছে৷ কারণ দেশটির সামরিক বাহিনী এই অপরাধের জন্য দায়ী এবং তিনি (সু চি) সেই বাহিনীর সঙ্গে মিলেই ক্ষমতায় আছেন৷’’

জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে বক্তব্য দিয়েছেন৷ এই সময় তিনি রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মৌখিকভাবে করা অঙ্গীকার পূরণে মিয়ানমার ব্যর্থ হয়েছে বলে অভিযোগ করেন৷

 

রোহিঙ্গা নিপীড়ন বিষয়ে জাতিসংঘের তদন্ত দল যে প্রতিবেদন দিয়েছে তার উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গা নির্যাতনের বিষয়টি গণহত্যা ও মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের সমতুল্য বলে মন্তব্য করেন৷

শিগগিরই রোহিঙ্গা সমস্যার একটি শান্তিপূর্ণ সমাধানেরও আহ্বান জানান তিনি৷

এদিকে, জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদ বৃহস্পতিবার একটি কমিটি গঠনের পক্ষে ভোট দিয়েছে৷ এই কমিটি মিয়ানমারে মানবাধিকার লঙ্ঘনের পক্ষে প্রমাণ সংগ্রহ করবে৷ রাখাইনে সম্ভাব্য গণহত্যার বিষয়টিও খতিয়ে দেখবে ঐ কমিটি৷

চীনের বক্তব্য

চীনের বর্তমান স্টেট কাউন্সিলর ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং লি বৃহস্পতিবার নিউইয়র্কে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এবং মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর কার্যালয়ের মন্ত্রী কিয়াও টিন্ট সোয়ের সঙ্গে কথা বলেছেন৷

এরপর চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে৷ এতে ওয়াং বলেন, ‘‘রাখাইন রাজ্যের বিষয়টি মিয়ানমার ও বাংলাদেশের মধ্যকার একটি বিষয়৷ একে জটিল করে তোলা, এর পরিধি বাড়ানো এবং একে বৈশ্বিক ইস্যু বানানোর বিষয়টি চীন সমর্থন করে না৷’’

বাংলাদেশ ও মিয়ানমার নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে সমস্যার একটা সমাধান খুঁজে বের করবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি৷

জেডএইচ/ডিজি (ডিপিএ, রয়টার্স, এপি)

কেমন আছে রোহিঙ্গারা?

এক ঘরে ১০ জনের বসবাস

আট সন্তান নিয়ে এক ঘরে গাদাগাদি করে থাকেন জোহার ও উম্মে কুলসুমা দম্পতি৷ তাঁদের দুই মেয়ে বড় হয়েছে৷ আর সবার ছোটটার বয়স দুই বছর৷ রাখাইনে কৃষি কাজ করতেন জোহার৷ এখন কাজ নেই, সাহায্যে চলছে তাঁদের জীবন৷

 

 



আজকের কার্টুন

লাইফস্টাইল

আজকের বাংলার মিডিয়া পার্টনার

অনলাইন জরিপ

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার রোহিঙ্গা দেরকে অত্যাচার করে ফলে ২০১৭ তে অগাস্ট ২৫ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১ মাসে ৫ লক্ষ্য রোহিঙ্গা জাতিগোষ্ঠী বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, আপনি কি মনে করেন বাংলাদেশ শরণার্থী দেরকে আবার ফিরে পাঠিয়ে দিক?

 হ্যাঁ      না      মতামত নেই    

সংবাদ আর্কাইভ